“জনতার মানিক’ জনতার পাশে”

তানভীর অাহমদ জাকির: জাতীয় সংসদের প্যানেল স্পিকার, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ সম্পর্কিত স্হায়ী কমিটির সদস্য ও ছাতক-দোয়ারা বাজার সংসদীয় অাসনের মাননীয় সংসদ সদস্য জননেতা মুহিবুর রহমান মানিক বৈশ্বিক মহামারী করোনা কালের মধ‍্যেও আকস্মিক বন‍্যায় প্লাবিত এলাকা পরিদর্শন ও ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম পরিচালনায় সক্রিয় ভাবে জনগনের পাশে থেকে মানুষের দুঃখের সঙ্গী হয়ে “জনতার মানিক” বাক্যটির সঠিক মর্যাদা রক্ষা করেছেন বলে অামার মনে হয়।বর্তমান দুঃসময়ে যখন জীবন বাচাতে অনেক জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক নেতারা নিরাপদ আশ্রয় গ্রহণ করেছেন তখন তিনি জীবনের ঝুঁকি নিয়ে জনগণের মাঝে ছুটে যাচ্ছেন। যাচ্ছেন অসহায়, দরিদ্র, দিনমজুরদের দোয়ারে দোয়ারে, দিচ্ছেন ত্রান সামগ্রী তাদের হাতে তুলে।একজন রাজনীতিবিদ কেমন হওয়া চাই?দেশের যেকোন পরিবেশ ও পরিস্হিতি অাসুক না কেন রাজনৈতিক নেতারা রাজনীতি করে মানুষের জন্য। সাধারন মানুষের কষ্ট লাঘবের প্রচেষ্টা করাই তার প্রধান কাজ। তিনি গত ১২ বছরে কতটুকু পেরেছেন সেটা জনগনই ভালো জানে। তবে হ্যা জিবনকে তিনি মানবতার তরে বিলিয়ে দেওয়ার মন-মানষিকতা যে সেটা প্রমাণ করে জনগনের মনের ভেতর জায়গা করে নিয়েছেন বলে অামার মনে হয়। অন্যান্য রাজনৈতিক নেতাদের মতো ঘরে বসে না থেকে যাচ্ছেন ছাতক-দোয়ারার প্রতিটি প্রান্তে, ছুটে বেড়াচ্ছেন অসংখ্য গ্রামের এদিক ওদিক, সরকারী ত্রান সহায়তার পাশাপাশি ব্যক্তিগত উদ্যোগে সহযোগীতা করে যাচ্ছেন হাজার হাজার পরিবার-কে।বয়সটার দিকে নজর দিলে থমকে উটবেন অাপনি!রাজনীতি সেই ছোট বেলা থেকেই শুরু করেছেন হয়েছেন ছাতকের উপজেলা চেয়ারম্যান তারপর হয়েছেন “এমপি” অাগে ছিলেন একটি উপজেলা-বাসীর জনপ্রতিনিধি এখন দু’টি উপজেলা তথা সংসদীয় অাসনের জনপ্রতিনিধি। কাজ করে যাচ্ছেন সবার জন্য। রাজনীতি অার দলনীতির পার্থক্য হলো এটা যারা সব দলের সবার জন্য কাজ করে অার যারা দলের জন্য কাজ করে। উনার কাছে সব দলের সবার প্রতি অান্তরিকতা ও ভালবাসা রয়েছে বলে ফুটে উটেছে নিজে স্বচক্ষের স্বাক্ষী।বয়সতো অার সেই জায়গায় নেই, যতদিন যাচ্ছে শরীর দূর্বল হচ্ছে তারপরও মাঠে সক্রিয় ভাবে জনগনের পাশে থেকে কাজ করে যাচ্ছেন। মিডিয়ায় কাজ করার কারনে উনার কাছে যেতে পেরেছি অসংখ্য বার। দেখেছি স্টেইজে বা নৌকায় উটতে হলে কতটা কষ্টের সম্মুখীন হতে হয়, সহকর্মীরা হাতে হাত রেখে এগিয়ে দিচ্ছেন প্রিয় “জনতার মানিক” নেতা-কে। এভাবেই হয়তো মৃত্যু্র অাগ মূহুর্ত পর্যন্ত ছাতক-দোয়ারা বাসীর জন্য কাজ করে যাবেন। রাজনীতি সবাই করতে পারে কিন্তু নেতা সবাই হতে পারে না। নেতৃত্বের গুনাবলী যাদের কাছে অাছে তারাই নেতা হতে পারে। সব দলমত, ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবাইকে নিয়ে পথচলা ও সবার সুখে-দুঃখে পাশে থেকে সবাইকে নিয়ে নিজের দেখা স্বপ্ন পূরন যিনি করেন তিনিই “নেতা” (অামার ভাষ্যমতে)”জনতার মানিক” সেই সংসদ নেতার পাশাপাশি বর্তমান দু’উপজেলা চেয়ারম্যানও কাজ করে যাচ্ছেন যার যার এলাকায় সংসদীয় নেতার পরামর্শ নিয়ে।বিশেষ করে দোয়ারা বাজার উপজেলা চেয়ারম্যান ডাক্তার আব্দুর রহিম সাহেবের কিছু কথা না বললেই নয়, পড়ন্ত এই বয়সেও জীবনের ঝুকি নিয়ে মানুষের পাশে থেকে কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি ডাক্তার হিসেবে জিবনে সেবা দিয়েছেন অনেক মানুষদের। মানুষের হতাশার সময় কিভাবে যায় সেটা উপলব্ধি করার ক্ষমতা উনার রয়েছে বলেই বয়স ও শরীরের দিকে নজর না দিয়ে জনগনের সেবক হিসেবে কাজ করে যাচ্ছেন। পাশাপাশি ছাতক উপজেলা চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান ও মাঠে সক্রিয় ভাবে ভূমিকা পালন করছেন। সংসদ নেতা যখন মাঠে থাকবে সেই নেতার দুই ডানা দুটি উপজেলা চেয়ারম্যান তো থাকতেই হবে। পাশাপাশি ছাতক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অাবু সাদাত লাহিন ও দোয়ারা বাজার উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলামও সক্রিয় ভূমিকায় রয়েছেন। জনপ্রতিনিধির কাজ যেকোন মূহুর্তে জনগনের পক্ষে কথা বলা, জনগনের দাবী বাস্তবায়ন করা, সুখে-দুঃখে পাশে থাকা।সবার প্রতি শ্রদ্ধা অার অসংখ্য ভালবাসা বিচরিত এই ছোট্ট মানুষের মন থেকে এই দোয়া করি- অাল্লাহ যেন উনাদের নেক হায়াত দান করেন এবং শেষ বয়স পর্যন্ত জনগনের পাশে থেকে কাজ করতে পারেন। পরিশেষে আল্লাহ সবাইকে সুস্থ ও নিরাপদে রাখুন।

লেখক-সংগঠক ও সাংবাদিক।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*