গোয়াইনঘাটের স্কুল শিক্ষিকা এমিলি বেগমের ইন্তেকাল: জানাজা রবিবার বাদ জোহর


আনোয়ার হোসাইনঃ শেষ পর্যন্ত না ফেরার দেশেই চলে গেলেন সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার ফতেহপুর ইউনিয়নের বড়নগর নিবাসী স্কুল শিক্ষীকা এমিলি বেগম।
(ইন্না লিল্লাহী ওয়া ইন্না ইলাইহী রাজিউন)।
অনেক চেষ্টা পরেও বাঁচানো গেল না মানুষ গড়ার এই কারিগর কে। তিনি প্রায় তিন বছর থেকে শরীরে কিডনী সমস্যায় ভুগছিলেন। ছয় মাস আগে তাঁর বিকল হওয়া দুটি কিডনীর মধ্যে একটি কিডনী অনেক চেষ্টা করে এবং বহু মানুষের সহযোগিতা নিয়ে প্রতিস্থাপনের ব্যবস্থা করেছিলেন এমিলির স্বামী সাংবাদিক আলিম উদ্দিন।
স্ত্রী কে বাঁচানোর এমন প্রচেষ্টা কয়জনই বা করে ? এমন প্রশ্ন ছিল এমিলির পরিচিত সহপার্টিদের । স্বামী আলিমেরও আশা ছিল, স্ত্রী কে বাঁচাতে পারবেন এবং সুস্থ হয়ে উঠলে তাদের পরিবারের একমাত্র সন্তানটি তার মাকে কাছে পাবে একান্ত ভাবে। কিন্তু যে সন্তানের জন্ম সময়ে ডাক্তারের অপচিকিৎসায় মা এমিলি বেগমের দুটি কিডনী নষ্ট করে ফেলেন ডাক্তার। ফলে শেষ পর্যন্ত মায়ের আদর ভাগ্যে জুটলনা ৩২ মাসের সেই শিশু আব্দুল্লাহ মুহাম্মাদ তাহেরের কপালে।
গতকাল ২৮ মার্চ শনিবার সন্ধ্যা ৬:২০ টায় ঢাকা মীরপুরে কিডনী ফাউন্ডেশন হাসপাতালে কিডনী প্রতিস্থাপন পরবর্তী ফলোয়াপ চিকিৎসা অবস্থায় ইন্তেকাল করেন গাবুরটিকি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক এই এমিলি বেগম।
তাঁর ব্যয় বহুল চিকিৎসায় পরিচিত-অপরিচিত সকলের হাত বাড়িয়ে সহযোগিতার দানকে মনের গহীন থেকে দোয়া ও শ্রদ্ধা জানিয়ে একরাশ নিঃশ্বাস ফেলে চিরদিনের জন্যে বিদায় জানালেন এমিলি। যার পদচিহ্ন পড়বে না আর এই মাঠে। এমিলির পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, আগামী কাল রোববার বাদ জোহর ফতেহপুর বড়নগর জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে তাঁর জানাজা অনুষ্ঠিত হবে ।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*