এলাকার সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সিসি ক্যামেরা স্থাপন গুরুত্বপূর্ণ কাজ:মেয়র আরিফ

সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেছেন, সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিতে শাহজালাল উপশহরের জি-ব্লক এলাকায় ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরা স্থাপন একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ। তিনি বলেন, সিসি ক্যামেরা না থাকাতে এই এলাকায় প্রায়ই ছিনতাই ও বিভিন্ন অপকর্মের ঘটনা ঘটে থাকে। সিসি ক্যামেরা না থাকার কারণে এসব অপকর্মে সঙ্গে জড়িতদের শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। তাই এসব অপরাধ রোধে সিলেট নগরীকে সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে সিলেট নগরীর প্রতিটি ওয়ার্ডের প্রত্যেকটি পাড়া-মহল¬ায় সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা হবে। যাতে কোন ধরনের সন্ত্রাসী, ছিনতাই, চাঁদাবাজির ঘটনা ঘটতে না পারে সে লক্ষে কাজ করে যাচ্ছি। তিনি জি-ব্লক উন্নয়ন পরিষদকে সাধুবাদ জানিয়ে বলেন, সিসি ক্যামেরা লাগানো সফল করতে হলে প্রশাসন এবং এলাকার সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।
তিনি ১০ ফেব্রুয়ারি সোমবার বাদ জোহর নগরীর শাহজালাল উপশহরের জি-ব্লক উন্নয়ন পরিষদের উদ্যোগে সিসি ক্যামেরা ও পরিষদের কার্যালয়ের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। তিনি পর্যায়ক্রমে সিলেট সিটি কর্পোরেশন এলাকাকে সিসি ক্যামেরার আওতায় নিয়ে আসার আশাবাদ ব্যক্ত করেন এবং জি-ব্লক সহ শাহজালাল উপশহরের উন্নয়নে কাজ করে যাবেন বলে আশ্বাস প্রদান করেন।
জি- ব্লক উন্নয়ন পরিষদের সভাপতি চৌধুরী হেলাল আহমদ এর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সাবেক কাউন্সিলর সালেহা কবির সেপী, পরিষদের উপদেষ্টা তালুকদার মোঃ জহির উদ্দিন, জি- ব্লক এপেক্সিয়ান মোঃ এমদাদুর রহমান, মিজানুর রহমান চৌধুরী, মোঃ খলিল উদ্দিন, সাজ্জাদুর রহমান লিমন, মোঃ শাহজাহান আহমদ চৌধুরী, কাজী আব্দুল জলিল খান, বাবুল খান, কবির উদ্দিন চৌধুরী, সুরত আলী, নাজমুল ইসলাম মিনহাজ, কবির আহমদ, দিদার হোসেন রুবেল সহ জি- ব্লকের অন্যান্য গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।
মোনাজাত পরিচালনা করেন জি-ব্লক জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা ইমদাদুল্লাহ।
শুরুতে প্রধান অতিথি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ফিতা কেটে সিসি ক্যামেরা ও জি-ব্লক উন্নয়ন পরিষদ কার্যালয়ের উদ্বোধন করেন। বিজ্ঞপ্তি

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*