সোমবার ২০ দলের হরতাল

by News Room

সিলেটের খবর ডেস্ক: উচ্চ আদালতের বিচারপতিদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে দিয়ে পাস হওয়া সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের দাবিতে সোমবার সারা দেশে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে ২০ দলীয় জোট।

শনিবার গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যাদলয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই হরতাল ঘোষণা করেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

গত পাঁচ জানুয়ারির নির্বাচনের পর আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকার গঠনের পর এটাই ২০ দলের প্রথম হরতাল কর্মসূচি।

সরকার অবৈধ ও অনৈতিক ক্ষমতা দীর্ঘস্থায়ী করার উদ্দেশ্যে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী করেছে দাবি করে সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল বলেন, “এই সংশোধনীর মাধ্যমে বিচারপতিদের অভিশংসন ক্ষমতা এমন একটি সংসদের কাছে অর্পণ করা হলো যা জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয়। এই অনৈতিক ও অবৈধ পার্লামেন্টের কোনো এখতিয়ার নেই সংবিধান সংশোধন করার। এটা বাংলাদেশের জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষার পরিপন্থী। এই সংশোধনীর মাধ্যমে বিচারব্যবস্থা একটি দলের, আওয়ামী লীগের অধীনে চলে গেল এবং বিচারপতিদের অভিশংসন ক্ষমতা এখন থেকে আওয়ামী লীগের।”

মির্জা ফখরুল বলেন, “ষোড়শ সংশোধনীর মাধ্যমে বিচার বিভাগের দলীয়করণ চূড়ান্ত হলো। এই সংশোধনীর ফলে মাননীয় বিচারপতিদের ওপর যে মনস্তাত্ত্বিক চাপ সৃষ্টি হবে, তাতে জনগণ ন্যায়বিচার থেকে বঞ্চিত হওয়ার আশঙ্কা থাকবে।”

২০ দলীয় জোটের পক্ষ থেকে এর আগে ষোড়শ সংশোধনীর নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়েছে উল্লেখ করে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব অভিযোগ করেন, “এই অনৈতিক সরকার কোনো কথাতেই কর্ণপাত করেনি, এমনকি বিশিষ্ট আইনজ্ঞ ও সংবিধান বিশেষজ্ঞদের পরামর্শও গ্রহণ করেনি।”

মির্জা ফখরুল বলেন, “বাংলাদেশের গণতন্ত্রকামী মানুষ এই সংশোধনী মেনে নিতে পারে না। ২০ দলের পক্ষ থেকে ও দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে আমরা এই সংশোধানীর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।এই সংশোধনী বাতিলের দাবিতে আগামী ২২ সেপ্টেম্বর সোমবার সারা দেশে সকাল-সন্ধ্যা শান্তিপূর্ণ হরতাল পালন করার জন্য জনগণের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানাচ্ছি।”

হজযাত্রীদের যানবাহন হরতালের আওতার বাইরে থাকবে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়। এ ছাড়া খাবার হোটেল, ওষুধের দোকান, অ্যাম্বুলেন্স, সংবাদপত্র ও সাংবাদিকদের যানবাহন হরতালের আওতায় পড়বে না।

ষোড়শ সংশোধনীর প্রতিবাদে যদিও আগে থেকেই সোচ্চার ছিল বিএনপি, তবে এর প্রতিবাদে হরতালের মতো কোনো কর্মসূচি ঘোষণার কথা এত দিন শোনা যায়নি। একরকম হঠাৎই এই হরতাল ঘোষণা করল ২০ দল। এর ফলে রবি ও সোমবার দুই দিনের হরতালের ফাঁদে পড়ল দেশ।

এদিকে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বিল পাসের প্রতিবাদে ২২ সেপ্টেম্বর সোমবার সারা দেশে আদালত বর্জন কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ বার কাউন্সিল। এ ছাড়া রোববার সারা দেশে আইনজীবীদের কালো পতাকা নিয়ে বিক্ষোভ মিছিলের ঘোষণা দেয়া হয়।

শনিবার বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সদস্যদের নিয়ে মতবিনিময় সভা শেষে এ কর্মসুচি ঘোষণা করেন বারের সদস্য ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন।

বিএনপির এই হরতালের আগে রোববার রয়েছে জামায়াতের দেশব্যাপী হরতাল। আপিল বিভাগে জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমির দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর আমৃত্যু কারাদণ্ডের প্রতিবাদে দুই দিনের হরতাল ডেকেছে দলটি। ইতিমধ্যে এর এক দিন বৃহস্পতিবার হরতাল করেছে তারা। রোববার দ্বিতীয় দিনের হরতাল কর্মসূচি রয়েছে।

গত বুধবার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাত রাত ১১টা ১০ মিনিটে দশম জাতীয় সংসদের তৃতীয় অধিবেশনে ষোড়শ সংশোধনী বিল পাস হয়। এর আগে এই সংশোধনীর ওপর দুই দফা বিভক্তি ভোট নেয়া হয়। প্রথম দফার বিভক্তি ভোটে বিলটির পক্ষে ভোট পড়ে ৩২৮টি। বিপক্ষে কোনো ভোট পড়েনি।  দ্বিতীয় দফার বিভক্তি ভোটে একটি কম ৩২৭টি ‘হ্যাঁ’ ভোট পড়ে। এবারও বিপক্ষে কোনো ভোট পড়েনি। ফলে বাহাত্তরের সংবিধানের ৯৬ অনুচ্ছেদ সর্বসম্মতিতে পুনর্বহাল হলো বর্তমান সংবিধানে। এতে উচ্চ আদালতের বিচারপতিদের অপসারণের ক্ষমতা ফিরে পেল সংসদ।

তবে কোনো বিচারপতিকে অপসারণ করতে হলে তার বিরুদ্ধে অসদাচরণ বা অসামর্থ্যের অভিযোগ বিশেষ কমিটির তদন্তে প্রমাণিত হতে হবে। আর ওই তদন্ত কমিটি গঠনের জন্য দ্রুততম সময়ের মধ্যে এ-সংক্রান্ত আইন প্রণয়ন করা হবে। তারপর সংবিধানে পুনর্বহাল হওয়া ৯৬ অনুচ্ছেদ কার্যকর করা সম্ভব হবে।

সংবিধান সংশোধনের অধিবেশনে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্ব করেন। সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর শেষে দিনের অন্যান্য কার্যসূচি স্থগিত করে বিল পাসের কার্যক্রম শুরু হয়। বিলটি পাসের প্রস্তাব উত্থাপন করেন আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক।
এ সময় সংসদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদসহ প্রায় সব সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

You may also like

Leave a Comment


cheap mlb jerseyscheap nhl jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseys