শাবিতে ছাত্রলীগ সন্ত্রাসীদের ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী: কারো মুখের দিকে না তাকিয়ে ব্যবস্থা নিন

by News Room

সিলেটের খবর ডেস্ক: কারো মুখের দিকে না তাকিয়ে শিক্ষাঙ্গনে সন্ত্রাস সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি সোমবার সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার ও পুলিশ কমিশনারের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে এ নির্দেশ দেন। এ সময় মন্ত্রিপরিষদের কয়েকজন সদস্য সেখানে উপস্থিত ছিলেন। গত বৃহস্পতিবার সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি) ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের দুইপক্ষের মধ্যে গোলাগুলি ও সংঘর্ষ হয়। এতে গুলি ও ধারাল অস্ত্রের কোপে প্রাণ হারান সুমন চন্দ্র দাস (২২) নামের ছাত্রলীগের এক কর্মী।

সংঘর্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ও পুলিশ সদস্যসহ আহত হন অন্তত ২৫ জন। সংঘর্ষের জেরে অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

সুমন চন্দ্র দাস সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার শ্যামেরচর গ্রামের হরিধন দাসের ছেলে তিনি।

এ পরিপ্রেক্ষিতে আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ নির্দেশ দিলেন। তিনি বলেন, কে কোন দলের তা প্রশাসনের দেখার কথা নয়। আপনারা সঙ্গে সঙ্গে অ্যাকশন নেবেন। ছাত্রলীগে কয়েকজন অছাত্র ও বহিরাগত আছে। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিলে এ ধরনের ঘটনা বন্ধ হবে।

ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রী আজ থেকে প্রত্যেক জেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সঙ্গে বৈঠক করার কথা জানান। দেশে প্রথমবারের মতো ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ ধরনের বৈঠক হবে।

এর অংশ হিসেবে প্রধানমন্ত্রী রাজশাহী ও সিলেট বিভাগের কর্মকর্তা এবং পাবনা ও মৌলভীবাজার জেলার প্রশাসন, পুলিশ ও জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কথা বলেন।

ভিডিও কনফারেন্সে জেলা প্রতিনিধি ও প্রশাসনিক কর্মকর্তারা নিজ নিজ এলাকার ভালো কাজের বিবরণ ও বিভিন্ন চাহিদার কথা তুলে ধরেন। এ সময় প্রধানমন্ত্রী কিছু বিষয় তাৎক্ষণিকভাবে সমাধানের জন্য নির্দেশ দেন।

এর মধ্যে প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে উপস্থিত পানিসম্পদমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদকে মনু নদীর ভাঙন রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য নির্দেশ দেন।

ভিডিও কনফারেন্সের পর মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ মোশাররাফ হোসাইন ভূইঞা জানান, প্রধানমন্ত্রী মাসে কমপক্ষে দুটি ভিডিও কনফারেন্স করবেন। এর লক্ষ্য স্থানীয় পর্যায়ে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড, সমস্যা, সংকট ও সম্ভাবনার বিষয়গুলো জানা এবং সঙ্গে সঙ্গে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া।

ভিডিও কনফারেন্সের ব্যাপারে শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা ২০০৮ সালে বলেছিলাম ডিজিটাল বাংলাদেশ হবে। এই হলো দৃষ্টান্ত।’

তিনি উদাহরণ দিয়ে বলেন, এখানে বসে তৃণমূল পর্যায়ের জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলে তাদের সমস্যার কথা জানতে পারছে সরকার।

ভিডিও কনফারেন্সের আগে মন্ত্রিসভার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৈঠকে মালয়শিয়ার সঙ্গে দুটি সমঝোতা স্মারকের অনুমোদন করা হয়।

বৈঠকে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ কোরিয়া সফর ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ইন্দোনেশিয়ার বালি দ্বীপের সফর সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করেন।

You may also like

Leave a Comment


cheap mlb jerseyscheap nhl jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseys