বিসিবিসহ চার দেশ ক্রিকেট ‘মোড়ল’র বিপক্ষে

by News Room

ডেস্ক রিপোর্ট: নানা জল্পনা-কল্পনা শেষে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) ক্রিকেটের তিন পরাশক্তি ভারত, অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের সংস্কার প্রস্তাবের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে।

এতদিন বিসিবি কিছু না বললেও মঙ্গলবার থেকে দুবাইতে শুরু হওয়া আইসিসির বৈঠকে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রস্তাবের বিপক্ষে অবস্থান নিবে বলে জানা গেছে।

আর বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের এই অবস্থানের বিষয়ে আরো পরিষ্কার হয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) চেয়ারম্যান জাকা আশরাফের কথায়। খবর: ক্রিকইনফো’র।

মঙ্গলবার আইসিসির বৈঠকে যোগ দেওয়ার আগে পিসিবি চেয়ারম্যান দেশটির এআরওয়াই টিভিকে বলেন, ‘পাকিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকা ও শ্রীলঙ্কার পরে বাংলাদেশও আমাদের সঙ্গে এসেছে। আমরা সবাই এখন পর্যন্ত একমত। দেখতে হবে ভেতরে আমরা কোথায় ভোট দিচ্ছি। তবে এটা বলা যায়, আমরা আমাদের সিদ্ধান্তে অটল।’

ইতোমধ্যে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি), ক্রিকেট বোর্ড অব সাউথ আফ্রিকা (সিএসএ) ও শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি) লিখিতভাবে প্রশাসনিক ও আর্থিক কাঠামোর পরিবর্তনে ভারত, অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের প্রস্তাবের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে।

আজ তারা আইসিসির গভর্নিং বডি ও নির্বাহী কমিটির বৈঠকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিপক্ষে ভোট দেবে। আর সর্বশেষ এতে যোগ হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

জাকা আশরাফ বলেন, ‘ইতোমধ্যে সিএসএ, পিসিবি ও এসএলসি লিখিতভাবে বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে। আমরা আমাদের স্বার্থকেই বড় করে দেখছি। এতে পাকিস্তানের ক্রিকেটের ক্ষতি হবে। এজন্য আমরা এর বিপক্ষে। বাকিরাও এমনই ভাবছে।’

এদিকে, তীব্র প্রতিবাদের মুখে কিছুটা পিছু হটার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ব ক্রিকেটের তিন মোড়ল- ভারত, অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ড। আইসিসির ভিত্তিমূল ধরে টান দিয়ে যে পজিশন পেপার প্রস্তুত করা হয়েছিল, এতে কিছু পরিবর্তন এনে তা উপস্থাপন করা হবে আইসিসির নির্বাহী কমিটির সভায়।

টেস্ট ক্রিকেটকে দুই স্তরে ভাগ করে ফেলার পরিকল্পনাটা বাদ দেওয়া হতে পারে বলে ক্রিকইনফোর আরেক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

ভারত, ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট বোর্ডের এই প্রস্তাব শুরু থেকেই তীব্র প্রতিবাদের মুখে পড়ে। নিউজিল্যান্ড ও জিম্বাবুয়ে ছাড়া টেস্ট খেলুড়ে বাকি পাঁচটি দেশই এই প্রস্তাবের বিরোধিতা করেছে। এ অবস্থায় প্রস্তাবটা পাস করা যাবে না, এটা এখন অনেকটাই নিশ্চিত।

দুই স্তরের টেস্ট ক্রিকেটের পরিকল্পনা ছাড়া আরো একটি পরিবর্তন আনা হয়েছে নতুন প্রস্তাবে। আইসিসির নতুন নির্বাহী কমিটির (এক্সকো) স্থায়ী সদস্যের সংখ্যা তিন থেকে বাড়িয়ে চার বা পাঁচে উন্নীত করা হতে পারে। তখন ভারত, ইংল্যান্ড আর অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে আরো একটি বা দুটি দেশ এ কমিটিতে যোগ দিতে পারে।

নতুন এই প্রস্তাবনা বাস্তবায়নের জন্য আইসিসির সদস্য দেশগুলোর সঙ্গে জোর আলাপ-আলোচনাও চালিয়ে যাচ্ছে ভারত, ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট বোর্ড। এই পরিকল্পনার সঙ্গে একমত পোষণ করানোর জন্য বাকি ক্রিকেট বোর্ডগুলোকে নানা ধরনের প্রলোভনও দেখাচ্ছে তারা।

You may also like

Leave a Comment


cheap mlb jerseyscheap nhl jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseys