প্রেমের মাশুল গুনছেন তিন্নি-সারিকা!

by News Room
ডেস্ক রিপোর্ট:এখনও আড়ালে তিন্নি। একই অবস্থা সারিকার। দু’জনার সঠিক অবস্থান কিছুতেই নির্ণয় করা যাচ্ছে না। মিডিয়া থেকে শতভাগ যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছেন। অনেক চেষ্টা-তদবির করেও দু’জনার বর্তমান অবস্থান কিংবা কোন তথ্য মিলছে না। দু’জনার খুবই নিকটজনরাও তাদের বর্তমান সম্পর্কে বলতে পারছেন না কিছুই। উল্টো সংবাদ কর্মীদের কাছে জিজ্ঞেস করে বসছেন, ‘এখন কি অবস্থা তিন্নির?’। ‘কোথায় আছে সারিকা?’ এসব প্রশ্নের পাশাপাশি এখনও অনেকেই এ দু’জন সম্পর্কে বলছেন, ‘আহা বড় রূপবতী ছিল মেয়েটা’। কেউ বলছেন, ‘মেয়েটা যেমন রূপের, তেমন গুণের ছিল। কোথায় হারালো?’ মিডিয়ায় ঘুরপাক খাওয়া এমন প্রশ্ন আর হাপিত্যেসের কোন সমাধান মিলছে না অনেক দিন ধরে।

লম্বা বিরতি ভেঙে গেল বছর ফেসবুকে নতুন ছবি প্রকাশ করে ব্যাপকভাবে আলোচনায় আসেন শ্রাবস্তী দত্ত তিন্নি। ফেসবুক ওয়ালে নিজের কঙ্কালসার ছবিটি সারাদেশে তিন্নি ভক্ত-দর্শক-সমালোচকদের মাঝে তোলপাড় সৃষ্টি করলেও এ বিষয়ে একেবারেই নির্বিকার ছিলেন এ পর্দাকন্যা। এখনও নিজের ফেসবুক ওয়ালে সেই ছবিটি ঝুলছে।

তবে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, তিন্নি এখনও বাবা-মা’র নজরদারিতে আছেন। সময় কাটছে অদৃশ্য শেকল পায়ে ইস্কাটনস্থ সরকারি কোয়ার্টের। সঙ্গে আছেন একমাত্র কন্যা ওয়ারিশাও। যদিও মেয়ের দেখভাল করেন তিন্নির বাবা-মা। মেয়ের প্রতি মায়ের বিশেষ কোন খেয়াল নেই। অন্যদিকে তিন্নির প্রাক্তন প্রেমিক-স্বামী আদনান ফারুক হিল্লোলও নতুন করে ব্যস্ত হয়েছেন অভিনেত্রী-উপস্থাপিকা নওশীনের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়ে।

দুষ্টু সমালোচকরা বলছেন, হিল্লোল এখন যারপরনাই ব্যস্ত স্ত্রী নওশীন আর তার পুরনো সংসারের পুত্রকে নিয়ে। ফলে কন্যা ওয়ারিশার প্রতি বাবা হিল্লোলের আগ্রহ ক্রমশ ফিকে হচ্ছে। অন্যদিকে তিন্নির পরিবারও চাইছে না হিল্লোলের সুবাদে সৎমা নওশীনের সংস্পর্শে থাকুক ছোট্ট শিশু ওয়ারিশা।

এদিকে শ্রাবস্তী তিন্নি পারিবারিকভাবে শেষ ক’বছর নজরবন্দি থাকার কারণ ‘ড্রাগস’ আসক্তি। এর মধ্য থেকেই অনেক চেষ্টা তদবির করে নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরী গেল বছর তিন্নিকে নাটকে ফেরান। ২০১৩ সালের প্রথম দিন অপূর্বকে সঙ্গে নিয়ে শুটিং করেন ‘এই মায়া’ নামের একটি নাটক। জানা গেছে, এই নাটকের সুবাদে আবারও ঘর থেকে বাইরে যাবার সুযোগ হয় তিন্নির। সেই সূত্রে আবারও ‘ড্রাগস’-এ আক্রান্ত হন তিনি। এরপর তাকে পারিবারিক উদ্যোগে ঢাকা-কলকাতার বিভিন্ন রিহ্যাবেও চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়। সব শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত, গেল আট মাস তিন্নি বাবা-মা’র নজরবন্দিতে আছেন।

বড়জোর আত্মীয়-স্বজনদের বাসায় আসা যাওয়া করতে পারছেন কঠোর নজরদারির মধ্যে। এক্ষেত্রে তিন্নিকে সম্পর্ক ছিন্ন করতে হয়েছে ‘ড্রাগস’ বন্ধুদের সঙ্গে। ছাড়তে হয়েছে অভিনয়টাও। বিশ্লেষকরা বলছেন, মিডিয়ায় তিন্নির অপমৃত্যু এখানেই। কারণ, আগুনজ্বলা রূপ-গুণে আদরের সন্তান শ্রাবস্তী দত্ত তিন্নির বর্তমান করুণ পরিণতির জন্য মিডিয়াকেই শতভাগ দায়ী করছেন তার বাবা-মা। এদিকে গ্ল্যামার ভুবনে তিন্নির রেশ কাটতে না কাটতেই অনেকটা একই ঝলক নিয়ে একই অবয়বে নাটক-বিজ্ঞাপনে হাজির হন সারিকা। তিনি এলেন এবং জয় করে নিলেন সব।

তিন্নির পর সারিকার বেলায়ও একই কথা প্রযোজ্য। যেন অগ্রদূত তিন্নির পথ ধরেই গেল অর্ধযুগ মিডিয়া ভুবনে দাপটের সঙ্গে দাপিয়ে বেড়িয়েছেন সারিকা। বিজ্ঞাপন দিয়ে উত্থান। নাটকে সাবলীল অভিনয়। নানা মাত্রিক প্রেমের গুঞ্জন। রীতিমতো সিডিউল ফাঁসানো। এবং সবশেষে ‘ড্রাগস’। তিন্নি থেকে সারিকার মিডিয়া রেকর্ডে পার্থক্য শুধু একটু খানি। সেটা হলো, তিন্নি উন্মাতাল প্রেম করে বিয়েবন্ধনে আবদ্ধ হন সহকর্মী হিল্লোলের সঙ্গে। আর সারিকা উন্মাতাল প্রেম করে বিয়ের পিঁড়িতে বসি বসি করেও বসেননি সহকর্মী নীরবের সঙ্গে। তিন্নির বর্তমান গৃহবন্দি জীবনের কারণ হিসেবে অনেকেই তুলে আনছেন হিল্লোলের সঙ্গে প্রেম-সংসারে বিচ্ছেদের বিষয়টিকে।

আর শারিকার বর্তমান ফেরারি পরিস্থিতির জন্য অনেকেই দায়ী করছেন মডেল-নায়ক নীরবের সঙ্গে প্রেম ও বিচ্ছেদের ঘটনাকে। মজার মিল হলো, প্রেমের দায় কাঁধে নিয়ে তিন্নির মতো সারিকাও এখন পারিবারিকভাবে নজরবন্দি। পরিবারের রক্তচক্ষু কোনভাবেই সারিকাকে দিচ্ছে না মিডিয়ার আলোতে চোখ মেলতে। এখানেও পরিবারের অভিযোগের আঙুল মিডিয়ার দিকে।

অন্যদিকে এক্ষেত্রেও প্রেমিক হিল্লোলের মতো বিয়ে করে সংসারী না হলেও নায়ক নীরব ঠিকই চুটিয়ে প্রেম করছেন নবাগতা নায়িকা অমৃতা কিংবা উপস্থাপিকা নুসরাত ফারিয়ার সঙ্গে! অথচ একই সময়ে গেল প্রায় এক বছর সারিকা নিখোঁজ রয়েছেন মিডিয়াজুড়ে।

গোপন পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, মাঝে নীরবের ওপর বদলা নিতে নায়ক ইমনের সঙ্গে গাটবেঁধে চলচ্চিত্রে নামতে চেয়েছেন অমিত সম্ভাবনাময়ী সারিকা। কিন্তু পারিবারিক অমতে সিনেমা তো দূরের কথা, এখন নাটক-বিজ্ঞাপনের অজুহাতেও চার দেয়ালের বাইরে গিয়ে আকাশ দেখতে পারছেন না তিনি।

তিন্নির মতো সারিকাও মিডিয়া থেকে বিচ্ছিন্ন রয়েছেন ফেসবুক-মুঠোফোনে। সব মিলিয়ে গেল এক যুগের গ্ল্যামার মিডিয়ায় সর্বোচ্চ উজ্জ্বল দুই উঠতি নক্ষত্র এখন প্রেমের মাশুল কড়ায় গণ্ডায় গুনছেন চার দেয়ালে বন্দি হয়ে। আর শ্রাবস্তী তিন্নির কাঁটা ছড়ানো ভুল পথে তর তর করে এগিয়ে চলেছেন অনুজ সারিকা জাহান।

You may also like

Leave a Comment


cheap mlb jerseyscheap nhl jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseys