ইজ্জতের মূল্য ৫ হাজার টাকা, অভিমানী কিশোরীর আত্মহনন

by News Room
এহসানুল হক, মাধবপুর (হবিগঞ্জ):

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার ধর্মঘর ইউনিয়নের গন্ধবপুর গ্রামে তরুণীর ইজ্জতের মূল্য ৫ হাজার টাকা নির্ধারণ করেছিলেন গ্রাম্য মোড়লরা। সালিশ নামের জগদ্দল পাথরের এই বোঝা সইতে পারেনি কিশোরী তাছলিমা। বেছে নেয় আত্মহননের পথ। রবিবার সকাল ১১টায় এ ঘটনা ঘটে। তাছলিমা গন্ধবপুর গ্রামের তারেক মিয়ার মেয়ে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গন্ধবপুর গ্রামের মহিদা বেগমের বাড়িতে পরিবার নিয়ে বসবাস করতেন তারেক মিয়া। গত ১১ মার্চ দুপুরে একই গ্রামের কানা কাশেমের স্ত্রী নিলুফা বেগম তার মাদক আস্তানায় তারেকের কিশোরী মেয়ে তাছলিমাকে ডেকে নেয়। সেখানে একই  এলাকার লম্পট বাবুল তাছলিমার ইজ্জ্বত হরণের চেষ্টা চালায়। তাছলিমার শোর চিৎকারে এলাকার লোকজন এগিয়ে আসলে বাবুল পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় গত শনিবার সকালে এলাকায় সালিশ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে লম্পট বাবুলকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা ও তাছলিমার বাবার পায়ে ধরে ক্ষমা প্রার্থনা করানো হয়। কিন্তু সালিশের এই রায় মেনে নিতে পারেনি অভিমানি তাছলিমা। রবিবার সকালে সে ঘরের তীরের সাথে ঝুলে আত্মহত্যা করে।

খবর পেয়ে মাধবপুর থানার এস.আই জাহিদুল ইসলাম লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেন। তিনি সাংবাদিকদের জানান এ ব্যাপারে থানা অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে। যদি এ মৃত্যুর সাথে কেউ জড়িত থাকে অবশ্যই তাকে আইনের আওতায় আনা হবে।

You may also like

Leave a Comment


cheap mlb jerseyscheap nhl jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseys