অস্ত্রের জোরে বেশিদিন ক্ষমতায় থাকা যাবে না: খালেদা

by News Room

ডেস্ক রিপোর্ট: গায়ের জোরে ভোট করা যায় না জনগণ তা দেখিয়ে দিয়েছে মন্তব্য করে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, ‘এই সরকার জনগণের ভোটে নয়, অস্ত্রের জোরে ক্ষমতায় রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘গত ৫ জানুয়ারি জনগণ তাদের ভোট দেয়নি। ভোটার নয় অনেক ফাঁকা কেন্দ্রে কুকুরকেও চিন্তিত দেখা গেছে।’

সোমবার বিকেলে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ১৮-দলীয় জোটের গণসমাবেশে খালেদা জিয়া এসব কথা বলেন।

এই জোর করে ক্ষমতায় থাকা বেশি দিন চলবে না বলেও গণসমাবেশে হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

খালেদা জিয়া বর্তমান সরকারকে অবৈধ আখ্যা দিয়ে অবিলম্বে নির্দলীয় সরকারের অধীনে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন দেওয়ার আহ্বান জানান।

তিনি উপস্থিত নেতাকর্মীদের দেখিয়ে বলেন, ‘এই সমাবেশ প্রমাণ করেছে- সরকারের সঙ্গে জনগণ নেই। এই সমাবেশ কেন ডেকেছি জানেন- আপনারা প্রহসনের নির্বাচনে অংশ নেননি, তাই ধন্যবাদ জানাতে।’

সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার ক্ষমতায় আছে জনগণের ভোটে নয় বরং অস্ত্রের জোরে। আপনারা কী ভোট কেন্দ্রে গেছেন? আপনারা যাননি, ভোটকেন্দ্রে না গিয়ে মানুষ নিরব প্রতিবাদ জানিয়েছে।

এ সময় ছবি দেখিয়ে তিনি বলেন, এই যে দেখেন- ভোটকেন্দ্রে কুকুর বসে আছে। তারাও চিন্তিত। আরেকটা ছবি দেখিয়ে খালেদা জিয়া বলেন, ‘বাচ্চারা ভোট কেন্দ্রে, কারণ ভোটাররা ভোট দিতে যায়নি।’

দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকা দেখিয়ে তিনি বলেন, ‘প্রথম আলো পত্রিকা বলেছে- জাল ভোট, কলঙ্কিত নির্বাচন। সুতরাং এরা হলো কলঙ্কিত সরকার। কারণ তারা জনগণের সরকার নয়। তাই সরকারকে বলব- নির্দলীয় সরকারের অধীনে দ্রুত নির্বাচন দিন।’

সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যৌথ বাহিনী দিয়ে অভিযানের নামে বিরোধী নেতাকর্মীকে খুন করা হচ্ছে, গুম করা হচ্ছে। সারা দেশে এখন চলছে গুম, খুন আর হত্যা। দেশের অবস্থা ভালো নেই।’

তিনি অভিযোগ করেন, ‘শুধুমাত্র নির্বাচনের সময়ে আমাদের ২২ জন নেতাকর্মীকে গুম করা হয়েছে। জনগণের ওপর নির্যাতন বন্ধ করুন।

You may also like

Leave a Comment


cheap mlb jerseyscheap nhl jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseys