বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তুলতে সোনার মানুষ দরকার:সিলেটের জেলা প্রশাসক

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছোট ছেলে শেখ রাসেলের ৫৫তম জন্মদিন উপলক্ষে গত শনিবার রাতে নগরীর রায় নগরস্থ সরকারী শিশু পরিবার (বালিকা) এর উদ্যোগে এক আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছোট ভাই শেখ রাসেল ১৯৬৪ সালের ১৮ অক্টোবর ধানমন্ডির ঐতিহাসিক স্মৃতি-বিজড়িত ৩২ নম্বর বঙ্গবন্ধু ভবনে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট মানবতার শত্রু ঘৃণ্য ঘাতকদের নির্মম বুলেটের আঘাতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নৃংশস ভাবে সপরিবারে হত্যা করা হয়। বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে নরপিশাচরা নির্মমভাবে শিশু রাসেলকে ও নির্মম ভাবে হত্যা করেছিল।তখন তিনি ইউনিভার্সিটি ল্যাবরেটরি স্কুলের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র ছিলেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুরের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলকে হত্যা মানব সভ্যতার ইতিহাসের এক জঘন্য অপরাধ।ওরা বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করে বাংলাদেশের ইতিহাস বদলে দিতে চেয়েছিল। কিন্তু তাদের সেই স্বপ্ন পূরণ হয়নি। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের বাংলাদেশ সকল ষড়যন্ত্র ছিন্ন করে এগিয়ে গেছে। তারা বলেন, নৃশংসতা ও অন্যায় করে কেউ বিজয়ী হতে পারেনি। শিশু রাসেলের হত্যাকারীরাও পরাজিত-বিস্মৃত হয়েছে। আমাদের প্রতিটি শিশুই শেখ রাসেলের প্রতিচ্ছবি। তিনি বলেন সিলেটে শিশু নির্যাতনের হার সব চেয়ে বেশী। এর উত্তরণ দরকার। শিশুদের অধিকার নিশ্চিত করতে পারলেই শেখ রাসেলের আত্মা শান্তি পাবে। তাদের যথাযথ ভাবে গড়ে তুলতে হবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তুলতে সোনার মানুষ দরকার।
সামাজিক প্রতিবন্ধী সেবা ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক লুৎফুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন-সিলেট বিভাগীয় সমাজসেবা কার্যালয়ের পরিচালক সন্দ্বীপ কুমার সিংহ,সিলেটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(সার্বিক) আসলাম উদ্দিন,সিলেট জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ পরিচালক নিবাস রঞ্জন দাশ, বিশিষ্ট কলামিষ্ট সাংবাদিক আফতাব চৌধুরী। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক নাজিম উদ্দিন, সিলেট শহর সমাজসেবা অফিসার মোহাম্মদ রফিকুল হক, রায় নগরস্থ সরকারী শিশু পরিবার (বালিকা) এর উপ তত্বাবধায়ক জাহানারা বেগম, দৈনিক সিলেটের ডাক এর সিনিয়র রিপোর্টার এম আহমদ আলী। পরে বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী প্রতীক এন্দ এবং নগরস্থ সরকারী শিশু পরিবার (বালিকা) এর নিবাসীদের পরিবেশনায় গান,নৃত্যসহ মনোঞ্জ সঅংস্কৃতিক অনুষ্ঠান দর্শকদের মুগ্ধ করে। – বিজ্ঞপ্তি

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*