ইসলামের প্রচার প্রসারে বঙ্গবন্ধু অনেক ভূমিকা রেখেছিলেন


মামুনুর রশিদ,কিশোরগঞ্জ থেকে: অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এডিসি জেনারেল মাসউদ বলেছেনে , ইসলামের প্রচার প্রসারে বঙ্গবন্ধু অনেক ভূমিকা রেখেছিলেন। বঙ্গবন্ধুই ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেিেছলেন।মঙ্গলবার কিশোরগঞ্জ সার্কিট হাউজ সম্মেলন কক্ষে ইসলামিক ফাউন্ডেশন কর্তৃক আয়োজিত জেলা পর্যায়ে মাজার শরীফ ও খানকা তত্ত্বাবধায়ক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যকালে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, এক হাজার খ্রিঃ থেকেই মাজার ও খানকাহের রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতা শুরু হয়েছিলো। আল্লাহর ওলীরা মরে গেলেও তার প্রভাব মরেনি। ইসলামের প্রচার প্রসারে মাজার খানকাহ বিরাট অবদান রাখছে। বিশে^র অনেক স্থানে মাজার খানকাহের মাধ্যমেই ইসলামের প্রচার হয়েছে বেশি। বাংলাদেশেও ইয়ামেন থেকে ৩৬০ জন আউলিয়া এসে ইসলাম প্রচার করেছেন। দেশের অনেক স্থানেই পুরাকীর্তি ও মাজার দেখা যায়। মাজার ও খানকাহের মাধ্যমে ধর্মীয় জ্ঞানচর্চা হয়ে থাকে। ইসলাম হলো এমন ধর্ম যেখানে জ্ঞানের প্রচারে সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়েছে। তবে কেউ ধর্মের নামে মাজার ও খানকাহের পবিত্রতা নষ্ট করলে ছাড় পাবে না। সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের কিশোরগঞ্জ জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক মোহাম্মদ ফারুক আহামেদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক একে এম শামসুল ইসলাম খান মাসুম, সনাক সভাপতি সাইফুল হক মোল্লা দুলু।বক্তব্য রাখেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ফিল্ড অফিসার মোঃ আবু বকর সিদ্দিক, বৌলাই পীর সাহেব বাড়ির খানকাহের তত্ত্বাবধায়ক সৈয়দ নুরুল আওয়াল তারা মিয়া, বাজিতপুর দেওয়ানবাড়ির মোহাম্মদিযা দরবার শরীফের তত্ত্বাবধায়ক দেওয়ান সৈয়দ মসনদ আলী প্রমুখ। পরে দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনা করে দোয়া করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মাস্টার ট্রেইনার মাও. জসিম উদ্দিন।সম্মেলনে জেলার বিভিন্ন মাজার ও খানকাহের তত্ত্বাবধায়কগণ, উলামায়ে কেরামগণ উপস্থিত ছিলেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*